হাওরে হঠাৎ গরম বাতাস কৃষকদের স্বপ্ন ভাঙার শঙ্কা 

1 week ago 24

ঝড়ের তাণ্ডব এর থেকেও যেন বড় ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে গরম বাতাস। ঝড়ের পর পরই বিস্তীর্ণ হাওয়ার জুড়ে গরম বাতাস হওয়ায় নতুন ধান নষ্ট হওয়ার আশঙ্কা করছেন স্থানীয় কৃষকরা । 

ঝড়ের তাণ্ডব এর থেকেও যেন বড় ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে গরম বাতাস। ঝড়ের পর পরই বিস্তীর্ণ হাওয়ার জুড়ে গরম বাতাস হওয়ায় নতুন ধান নষ্ট হওয়ার আশঙ্কা করছেন স্থানীয় কৃষকরা । 

কালবৈশাখী ঝড়ে লণ্ডভণ্ড হয়েছে নেত্রকোনা জেলা শহরসহ আশপাশের বেশ কয়েকটি উপজেলায়। রোববার রাতে জেলার বারহাট্টা, মদন, কেন্দুয়া, মোহনগঞ্জ, খালিয়াজুরীতে কাল বৈশাখী ঝরে গাছপালা ভাঙাসহ টিনের চাল ওড়ে আটকে আছে বৈদ্যুতিক খুঁটিতে । 

তবে ঝড়ের তাণ্ডব এর থেকেও যেন বড় ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে গরম বাতাস। ঝড়ের পর পরই বিস্তীর্ণ হাওয়ার জুড়ে গরম বাতাস হওয়ায় নতুন ধান নষ্ট হওয়ার আশঙ্কা করছেন স্থানীয় কৃষকরা । 

কৃষকরা জানান, গতকাল রাতে সারাদেশে ঝড়ো হাওয়ার সময় নেত্রকোনায় শুধু ধুলো বাতাস হয়েছে। পরবর্তীতে মধ্যরাতে বেশ গরম অনুভূত হয়। এরপর তারা জমিতে গিয়ে দেখেন অনেক ধান সাদা হয়ে গেছে। 

বিস্তীর্ণ হাওয়ার জুড়ে গরম বাতাস হওয়ায় নতুন ধান নষ্ট হওয়ার আশঙ্কা করছেন স্থানীয় কৃষকরা

মোহনগঞ্জ উপজেলার ডিঙ্গাপোতা হাওরের মল্লিকপুর গ্রামের কৃষক অনুপ তালুকদার জানান, যেগুলোতে দুধ এসেছিলো সেগুলোই এমন হয়েছে। আবার মোটামুটি ধান চলে এসেছে যেগুলোতে সেগুলো নষ্ট হবে না। কোনো ঝড় না কিছু না একটা প্রচণ্ড গরম অনুভূত হয়। আর এরপরই সকালে আমরা মাঠে এসে এমনটা দেখতে পাই। 

এদিকে বারহাট্টা উপজেলার বাউসি ইউপির মৌয়াটি গ্রামের কৃষক ওযুদ মিয়া, রফিক মিয়াসহ অন্যরা বলেন, মৌয়াটি বন্দে প্রায় ৫ শ’ একর জমিতে এমনটা হয়েছে। 

এ ব্যাপারে নেত্রকোনা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপ পরিচালক কৃষিবিদ মো. হাবিবুর রহমান বলেন, কৃষি অফিসারদেরকে এলাকায় পাঠানো হয়েছে। না দেখে কিছু বলা যাচ্ছে না। আমি নিজেও দেখে আসছি।

View Source