স্বাস্থ্যকর্মীর ভুলে পঙ্গু হতে বসেছে ১৪ মাসের শিশু

5 days ago 8

 ডেইলি বাংলাদেশ)

ভুক্তভোগী শিশু মো. মিফতাহুল জান্নাহ (ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ)

বরিশাল সদর উপজেলার ৮ নম্বর চাঁদপুরা ইউনিয়নে তালুকদার হাট কমিউনিটি ক্লিনিকের স্বাস্থ্য সহকারী আফরোজা ফেরদৌসি হাসির ভুলে পঙ্গু হতে বসেছে ১৪ মাসের এক শিশু।

ভুক্তভোগী শিশু মো. মিফতাহুল জান্নাহ আরেফিনের পিতা মো. সুমন খান জানান, গত বছরের শেষের দিকে আমার নয় মাসের বাচ্চাকে হাম-রুবেলার টিকা দিতে যাই চাঁদপুরা কমিউনিটি ক্লিনিকে।

সেখানে স্বাস্থ্য সহকারী আফরোজা ফেরদৌসী হাসি আমার বাচ্চাকে রানের মাংসে ইনজেকশন পুশ না করে হাঁটুতে ইনজেকশন পুশ করে। এর কিছুদিন পরেই আমার বাচ্চার হাঁটু ফুলে উঠলে ডাক্তারের শরণাপন্ন হই, তারা বলেন, ভুল স্থানে ইনজেকশনের কারণে হাঁটুতে ইনফেকশন হয়েছে এবং অপারেশন করাতে হবে।

ভুক্তভোগী সুমন খান ধারদেনা করে বাচ্চার অপারেশন করালেও এখনো হাঁটুর ফোলা কমছে না। ১৪ মাসের ফুটফুটে এই শিশুটিকে নিয়ে দুশ্চিন্তায় জীবন পার করছেন তার বাবা-মা।

ভুক্তভোগী সুমন খান ও তার স্ত্রী তানিয়া আক্তার বলেন, আমাদের বাচ্চাকে ইনজেকশন পুশ করার সময় তাকে বারবার বলেছিলাম যে হাঁটুতে পুশ করেন কেন? তখন স্বাস্থ্য সহকর্মী হাসি বলেন, আমরা জানি যে কোথায় ইনজেকশন দিতে হয়। আপনারা চুপ থাকেন। এখন তার ভুলে আমাদের বাচ্চা পঙ্গু হওয়ার পথে, আমরা এই ভুলের যথাযথ তদন্ত সাপেক্ষে বিচার চাই।

তবে এ বিষয়ে চাঁদপুরা ইউনিয়নের স্বাস্থ্য সহকারী আফরোজা ফেরদৌসী হাসি বলেন, আমি ইনজেকশন সঠিকভাবেই পুশ করেছি হয়তো বাচ্চাটির অন্য কোনো সমস্যা আছে।

এদিকে এ বিষয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাক্তার সুমি আক্তার বলেন, বিষয়টি আমার জানা নেই কেউ লিখিতভাবে অভিযোগ জানালে তদন্ত সাপেক্ষে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

View Source