সাংবাদিক মুজাক্কির হত্যা মামলায় গ্রেফতার আরো ৩

3 weeks ago 16

গুলিবিদ্ধ হয়ে সাংবাদিক বুরহান উদ্দিন মুজাক্কির নিহত হওয়ার ঘটনার মামলায় আরো ৩ জন গ্রেফতার

গুলিবিদ্ধ হয়ে সাংবাদিক বুরহান উদ্দিন মুজাক্কির নিহত হওয়ার ঘটনার মামলায় আরো ৩ জন গ্রেফতার

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে দুই পক্ষের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হয়ে সাংবাদিক বুরহান উদ্দিন মুজাক্কির নিহত হওয়ার ঘটনার মামলায় আরো ৩ জনকে গ্রেফতার দেখানোর আবেদন মঞ্জুর করেছেন আদালত।

মঙ্গলবার নোয়াখালী চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট নবণীতা গুহ এ আবেদন মঞ্জুর করেন। এর আগে রোববার  চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতের মাধ্যমে ওই তিনজনকে গ্রেফতার দেখানোর জন্য আবেদন করা হয়। গ্রেফতার দেখানো তিনজনই মির্জা কাদেরের অনুসারী।

গ্রেফতাররা হলেন চরএলাহী ইউপির আব্দুল মালেক, মুছাপুর ইউপির ইকবাল চৌধুরী ও বসুরহাট পৌরসভার আবুল হাশেম।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পিবিআইয়ের পরিদর্শক মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, এসব আসামি অন্য মামলায় গ্রেফতার হয়ে জেলহাজতে ছিল। আমরা তাদের সাংবাদিক বুরহান উদ্দিন হত্যা মামলায় শ্যোন অ্যারেস্ট দেখানোর জন্য নোয়াখালীর চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের ৪ নম্বর আমলি আদালতে আবেদন করি। আজ সকালে এ বিষয়ে শুনানি শেষে বিচারক সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট নবণীতা গুহ আমাদের আবেদন মঞ্জুর করেন। এখন এসব আসামিকে আইনি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। 

এর আগে ৭ মার্চ এ মামলায় বসুরহাট থেকে বেলাল হোসেনকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারের পর তাকে তিন দিনের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে বেলালের কাছ থেকে ঘটনার বিষয়ে কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছিলেন পিবিআইয়ের এসপি মিজানুর রহমান মুন্সি। এ নিয়ে এ মামলায় ১৫ জনকে গ্রেফতার করা হলো।

গত ১৯ ফেব্রুয়ারি কোম্পানীগঞ্জে দুই পক্ষের সংঘর্ষ ও গোলাগুলি চলাকালে দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার পত্রিকার কোম্পানীগঞ্জ প্রতিনিধি বুরহান উদ্দিন গুলিবিদ্ধ হন। ২০ ফেব্রুয়ারি রাত পৌনে ১১টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

গত ১৯ ফেব্রুয়ারি বিকেলে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার চাপরাশিরহাট বাজারে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করেন উপজেলা উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান। মিছিলটি বিকেল পাঁচটায় বাজারসংলগ্ন তার বাড়ি থেকে বের হয়ে চাপরাশিরহাট মধ্যম বাজারে গেলে অপর পক্ষ হামলা চালান।

এ ঘটনায় নিহত সাংবাদিক বুরহানের বাবা নুরুল হুদা বাদী হয়ে ২৩ ফেব্রুয়ারি অজ্ঞাতনামা আসামিদের বিরুদ্ধে কোম্পানীগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা করেছেন। মামলা করার পরদিনই পুলিশ সদর দফতরের নির্দেশে মামলাটির তদন্তের দায়িত্ব পায় পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।

View Source