রাহুল-পান্তকে ছাপিয়ে নায়ক বেয়ারস্টো-স্টোকস

1 month ago 17

৩৩৭ রানের বিশাল লক্ষ্য সামনে থাকলে চাপে থাকা স্বাভাবিক। কিন্তু দ্বিতীয় ওয়ানডেতে ইংল্যান্ডকে দেখে তা মনে হয়নি। বরং স্বাচ্ছন্দ্যে ব্যাটিং করে গেছে তারা। যদিও ৯ বলের ব্যবধানে ভারত তাদের ৩ উইকেট তুলে নিয়ে কিছুটা রোমাঞ্চ ছড়িয়েছিল, তবে শেষ হাসি হেসেছে সফরকারীরাই। ৩৯ বল হাতে রেখে ৬ উইকেটের জয়ে তিন ওয়ানডের সিরিজে ১-১ এ সমতা ফেরালো ইংল্যান্ড।

শুক্রবার (২৬ মার্চ) বিরাট কোহলির টানা দ্বিতীয় হাফ সেঞ্চুরি ও লোকেশ রাহুলের সেঞ্চুরির পর ঋষভ পান্তের ঝড়ো ফিফটিতে ৬ উইকেটে ৩৩৬ রান করেছিল ভারত। জেসন রয় ও বেন স্টোকসের সঙ্গে জনি বেয়ারস্টো দুটি শতাধিক রানের জুটিতে পাল্টা জবাব দেন। ৪৩.৩ ওভারে ৪ উইকেটে ৩৩৭ রান করে দুই ম্যাচ শেষে সমতা নিশ্চিত করে ইংল্যান্ড।

পাওয়ার প্লেতে বেশ দেখেশুনে খেলার পাশাপাশি রানও তুলেছেন বেয়ারস্টো ও জেসন। ১৭তম ওভারে মিডউইকেট থেকে রোহিত শর্মার থ্রো থেকে বল পেয়ে জেসন স্ট্রাইক প্রান্তে দৌড়ে আসার আগেই পান্ত স্টাম্প ভেঙে দেন। ৫২ বলে ৭ চার ও ১ ছয়ে ৫৫ রান করে রান আউট হন জেসন। বেয়ারস্টোর সঙ্গে ১১০ রানের জুটি গড়েন এই ওপেনার।

দ্বিতীয় উইকেটে স্টোকসকে পেয়ে ভয়ঙ্কর হয়ে ওঠেন বেয়ারস্টো। বিশেষ করে ৩০ ওভারের পর থেকে তারা চড়াও হন ক্রুনাল পান্ডিয়া ও কুলদীপ যাদবের ওপর। ৮৬ বলেই ১০০ রান করা এই জুটি দেড়শ ছোঁয় ১০৪তম বলে। চার-ছক্কার ফুলঝুরি ছিল দুজনের ব্যাটে। ৯৫ বলে ৮ চার ও ৬ ছয়ে সেঞ্চুরি উদযাপন করেন বেয়ারস্টো। একই পথে ছিলেন স্টোকস। কিন্তু ৫২ বলে ৯৯ রানে থাকতে তার গ্লাভস ছুঁয়ে পান্তের হাতে বল জমা হয়। ৩৬তম ওভারে ১৭৫ রানের শক্ত জুটি ভেঙে দেন ভুবনেশ্বর কুমার।

পরের ওভারে প্রসিদ্ধ কৃষ্ণা তুলে নেন স্টোকস ও ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক জস বাটলারের উইকেট। ১১২ বলে ১১ চার ও ৭ ছয়ে ১২৪ রানে স্টোকসকে কোহলির ক্যাচ বানান তিনি। তিন বল পর বাটলারকে বোল্ড করেন ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় ম্যাচ খেলতে নামা এই পেসার।

লক্ষ্য থেকে ৪৯ রান দূরে থাকতে এই ধস নামলেও পথ হারায়নি ইংল্যান্ড। জীবনের প্রথম ওয়ানডে খেলতে নামা লিয়াম লিভিংস্টোনের সঙ্গে ৪৩ বলে ৫০ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটিতে জয় নিশ্চিত করেন ১৬ রানে অপরাজিত থাকা ডেভিড মালান। লিভিংস্টোন খেলছিলেন ২৭ রানে।

এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে কোহলি ও রাহুলের একশ ছাড়ানো জুটিতে বড় সংগ্রহের আভাস দেয় ভারত। কোহলি ৬৬ রান করে বিদায় নিলে রাহুলকে উপযুক্ত সঙ্গ দেন পান্ত। এই জুটিও একশর বেশি রান তোলে স্কোরবোর্ডে। রাহুল তার ক্যারিয়ারের পঞ্চম সেঞ্চুরি মেরে ১০৮ রানে বিদায় নিলে পান্তের ৪০ বলে ৭৭ রানের ইনিংস কার্যকরী ভূমিকা রাখে। তবে তাদের হাসি কেড়ে নিয়েছে বেয়ারস্টো ও স্টোকস ঝড়।

আগামী রোববার পুনেতেই হবে ভারত ও ইংল্যান্ডের সিরিজ নির্ধারণী শেষ ওয়ানডে ম্যাচ। এর আগে চার ম্যাচের টেস্ট সিরিজে স্বাগতিকরা জিতেছিল ৩-১ এ। পরে পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ নির্ধারণ হয় শেষ ম্যাচে, ভারত তা জিতে নিয়ে সিরিজ নিশ্চিত করে ৩-২ ব্যবধানে।

Read Entire Article