বিনামূল্যে দৃষ্টিশক্তি ফিরে পেলো হাজারো মানুষ 

2 months ago 38

গ্রামের হতদরিদ্র ও অসহায় মানুষদের দোরগোড়ায় বিনামূল্যে চক্ষু সেবা পৌঁছে দেয়ার লক্ষ্যে নেত্রকোনা দুর্গাপুরে বিনামূল্যে চক্ষু সেবা ক্যাম্পেইন। 

গ্রামের হতদরিদ্র ও অসহায় মানুষদের দোরগোড়ায় বিনামূল্যে চক্ষু সেবা পৌঁছে দেয়ার লক্ষ্যে নেত্রকোনা দুর্গাপুরে বিনামূল্যে চক্ষু সেবা ক্যাম্পেইন। 

বয়স বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে কমতে থাকে চোখের দৃষ্টিশক্তি। অনেকে আবার অল্প বয়সেই নানা কারণে চোখের সমস্যায় ভুগছেন প্রতিনিয়ত। শহর-গ্রাম দুই ক্ষেত্রেই এই প্রবণতা থাকলেও গ্রামের মানুষ নানা সময়ে অবহেলা করায় অল্প থেকেই বড় ধরনের বিপদ ডেকে আনে । 

গ্রামের হতদরিদ্র ও অসহায় মানুষদের দোরগোড়ায় বিনামূল্যে চক্ষু সেবা পৌঁছে দেয়ার লক্ষ্যেই নেত্রকোনা দুর্গাপুরে বিনামূল্যে চক্ষু সেবা ক্যাম্পেইন হয়েছে । 

মঙ্গলবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত দুস্থ স্বাস্থ্য কেন্দ্র (ডিএসকে)সমৃদ্ধি কর্মসূচির আয়োজনে ও পল্লী কর্ম সহায়ক ফাউন্ডেশন (পিকেএসএফ) এর সহযোগিতায় উপজেলার ফান্দায় সদর ইউনিয়ন পরিষদ চত্বরে এ ক্যাম্পেইন হয় ।  

ক্যাম্পেইনে সদর ইউপির পাহাড়ি অঞ্চল ও আদিবাসী অধ্যুষিত এলাকার অসহায় ও দরিদ্র প্রায় এক হাজারেও অধিক নারী পুরুষ সেবা নিতে আসেন। এর মাঝে প্রাথমিকভাবে চিকিৎসাসেবা দেয়া হয় ১৮১ জনকে। আর বিনামূল্যে চোখের ছানি পড়া অপারেশনের জন্য আরো ৭৬ রোগীকে নির্বাচিত করেন ময়মনসিংহ থেকে আসা চক্ষু বিশেষজ্ঞ ডাক্তারগণ। 

নির্বাচিত প্রতিটি রোগীর চোখের ছানি পড়া অপারেশন, যাতায়াত ব্যবস্থাসহ সকল খরচ বহন করে দুস্থ স্বাস্থ্য কেন্দ্র (ডিএসকে)। 

ক্যাম্পেইনে ডিএসকে সমৃদ্ধি কর্মসূচির সমন্বয়কারী মো. আবুল কালাম আজাদ এর সঞ্চালনায় ও সদর ইউপি চেয়ারম্যান শাহিনুর আলম সাজুর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান পারভিন আক্তার। 

বক্তব্য রাখেন ডিএসকে যুগ্ম পরিচালক মো. আলাউদ্দিন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ সভাপতি মো. আলী আজগর, ডিএসকে দুর্গাপুর আঞ্চলিক ব্যবস্থাপক মো. নজরুল ইসলাম, প্রবীণ কর্মসূচির প্রোগ্রাম অফিসার মোরশেদ আলম, কৈশোর কর্মসূচির প্রোগ্রাম অফিসার দিলিপ কুমার ঘোষ, স্বাস্থ্য পরিদর্শক প্রমুখ।

বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা পেয়ে মিনকী ফান্দা গ্রামের জোহরা খাতুন জানান, হাতের কাছে এরকম বিনামূল্যে সেবা পেয়ে আমরা খুবই খুশি। এভাবে যদি সব সময় সেবা দেয়া হয় তাহলে সহজেই রোগ থেকে মুক্তি পাবো । তাছাড়া গ্রামের অনেক মানুষ টাকার অভাবে চিকিৎসা সেবা নিতে পারেন না তাদের জন্য বিনামূল্যে এই চিকিৎসাসেবা খুবই প্রয়োজনীয় ছিল । 

ডিএসকে সমৃদ্ধি কর্মসূচির সমন্বয়কারী মো. আবুল কালাম আজাদ বলেন, প্রতিনিয়তই গ্রামের অসহায় ও দরিদ্র মানুষদের সেবা নিশ্চিত করার জন্য বিনামূল্যে সব ধরনের চিকিৎসা সেবা দিয়ে আসছে। এরই অংশ হিসেবে চক্ষু চিকিৎসা সেবা একটি। আমরা প্রতিবছরই প্রত্যন্ত গ্রাম থেকে অসহায় মানুষদের এনে চোখের ছানি অপারেশন করে থাকি। এক্ষেত্রে রোগীদের সব ব্যয় ভার বহন করি । 

Read Entire Article