প্রশংসা কুড়াচ্ছেন বাঁধন (ভিডিও)

2 weeks ago 10

স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীতে বিদ্রোহী কবি কাজী নজরুল ইসলামের ‘জয় হোক’ গান নিয়ে নির্মিত হয়েছে মিউজিক‌্যাল ফিল্ম।

সংগীতশিল্পী অর্ণবের সংগীতায়োজনে এই ধ্রুপদী গানে কণ্ঠ দিয়েছেন সুস্মিতা আনিস। কাজী নজরুল ইসলামের চেতনাকে স্মরণ করে নির্মিত মিউজিক‌্যাল ফিল্মটি নির্মাণ করেছেন পিপলু খান। আর ফিল্মটির মূল চরিত্রে অভিনয় করেছেন আজমেরী হক বাঁধন।

বুধবার (২৪ মার্চ) রাতে সুস্মিতা আনিসের ইউটিউব চ্যানেল ও অন্যান্য ডিজিটাল প্ল‌্যাটফর্মে মুক্তি পেয়েছে এই মিউজিক‌্যাল ফিল্ম। এতে দেখা যায়, এক নারীর পুনরুত্থান ও পুনর্জাগরণের গল্প। এই নারী আবির্ভূত হন বিভিন্ন দেবী রূপে। একজন হেরে যাওয়া নারী, যে জীবনে অনেক ধরনের দুর্ভোগের ভাগীদার, তিনি কীভাবে অবাধ্যতাকেই তার অস্ত্র বানিয়ে জীবিত হয়ে উঠেন—সেই গল্প বলে গানটি। এই মিউজিক‌্যাল ফিল্মে বিভিন্ন দেবী রূপে দেখা যায় বাঁধনকে। গানটি মুক্তির পর অন্তর্জালে দারুণ প্রশংসা কুড়াচ্ছেন বাঁধন।

সীমান্ত নামে একজন লিখেছেন—‘আমি জানি না, এতটা গভীর আর শৈল্পিক কাজের মর্মার্থ বোঝার মতো দর্শক আমাদের গড়ে উঠেছে কি না! মুগ্ধ হয়ে পুরো কাজটি দেখলাম।’ খান জেহাদ নামে একজন লিখেছেন—‘একটা সিনেমা দেখলাম নাকি একটা কবিতা পড়লাম, জানি না! শুধু জানি এটা নিছক একটা মিউজিক ভিডিও না, তার থেকে অবশ্যই আলাদা এবং বেশি কিছু। অর্ণব তো অর্ণবই, গায়িকাও ঠিকঠাক আর আজমেরি হক বাঁধনের চেষ্টা সব কিছুকে ছাড়িয়ে অন্য উচ্চতায়। পিপলু ভাইকে স্যালুট।’

এ গানের গায়িকা সুস্মিতা আনিস বলেন, ‘এই মিউজিক‌্যাল ফিল্মে তুলে ধরা হয়েছে নারীদের প্রতিদিনের সংগ্রামের চিত্র, তাদের রুখে দাঁড়ানোর উদ্দীপনাকে।  নজরুল নিয়মভঙের বুননকে শিল্পের পর্যায়ে নিয়ে গিয়েছিলেন এবং স্বাভাবিকভাবেই এই গানটিতেও তার অবাধ্য চেতনা প্রকাশ পেয়েছে। এই গানে আশা করা হয়েছে শান্তি, সাম্য ও সত্যের জয়ের। অত্যাচার, অসমতা, অশান্তি, জরা এবং মিথ্যার শেকল ভেঙে বেড়িয়ে আসার উৎসাহ যোগায় এই গান।’

View Source