দিপুর দারুণ সেঞ্চুরির দিনে রাজশাহীতে বোলারদের রাজত্ব 

2 months ago 42

‘বঙ্গবন্ধু জাতীয় ক্রিকেট লিগ স্পন্সরড বাই ওয়ালটন’-এ প্রথম রাউন্ডের দ্বিতীয় দিন রাজশাহী বিভাগের বিপক্ষে দারুণ সেঞ্চুরি করেছেন চট্টগ্রাম বিভাগের শাহাদাত হোসেন দিপু। তার সেঞ্চুরির দিনে রাজত্ব করেছেন ২ দলের বোলাররা।

বুধবার (২৩ মার্চ) রাজশাহীর শহীদ কামরুজ্জামান স্টেডিয়ামে চট্টগ্রামের সংগ্রহ ৫ উইকেটে ৪৩ রান। দলটি এগিয়ে আছে ১৭৮ রানে।

প্রথম ইনিংসে ইমন-মুমিনুলরা শুরুতে ব্যর্থ হলেও দলের হাল ধরেন শাহাদাত হোসেন দিপু। সেঞ্চুরি থেকে মাত্র ১২ রান দূরে থেকে গতকাল প্রথম দিন শেষ করেছিলেন তিনি। আজ তিন অঙ্কের ম্যাজিক ফিগার স্পর্শ করতে ভুল করেননি। ২৫৬ বলে ১০৮ রানের ইনিংস খেলে ফেরেন সাজঘরে। তার ইনিংসটি সাজানো ছিল ১১টি চার ও ২টি ছয়ে। 

হাতে ৩ উইকেট ও স্কোরবোর্ডে ২৫৬ রান নিয়ে দিন শুরু করেছিল চট্টগ্রাম। দিপুর আউটের মাধ্যমে ২৮৭ রানে থামে তাদের ইনিংস। রাজশাহীর হয়ে সর্বোচ্চ ৪ উইকেট নেন ফরহাদ রেজা। ২টি করে উইকেট নেন আসাদুজ্জামান পায়েল ও তাইজুল ইসলাম।

২৮৭ রানের লিডের সামনে খেলতে নেমে নোমান চৌধুরী ও মেহেদী হাসান রানার সামনে দাঁড়াতে পারেন রাজশাহীর ব্যাটসম্যানরা। দলটি থেমেছে ১৫২ রানে। সর্বোচ্চ ২৭ রান করে অপরাজিত থাকেন ফরহাদ রেজা। ২৪ রান করে আউট হন ফরহাদ হোসেন ও সাব্বির রহমান। ১৩ ওভারে ৪৭ রান দিয়ে নোমান নেন ৪ উইকেট এবং ১১ ওভার ৩ বলে ২২ রান দিয়ে ৩ উইকেট নেন রানা।

প্রথম ইনিংসে দারুণ ব্যাটিং করা চট্টগ্রাম দ্বিতীয় ইনিংস খেলতে নেমে দেখে মুদ্রার উল্টো পিঠ। ১৩৫ রানে এগিয়ে থেকে খেলতে নামলেও ধস নামে তাদের ব্যাটিংয়ে। ফরহাদ রেজার তোপে ৪৩ রানে নাই হয়ে যায় ৫ উইকেট। 

চট্টগ্রামের ২ ওপেনার পিনাক ঘোষ ও পারভেজ হোসেন ইমন ফেরেন ০ রানে। অধিনায়ক মুমিনুল হক ব্যর্থ এই ইনিংসেও। আউট হন ১৩ রান করে। প্রথম ইনিংসে হাফ সেঞ্চুরি করা ইয়াসির আলি ও রানা ফেরেন ৪ ও ০ রান করে। তিনে নামা মাহমুদুল হাসান জয় হাল ধরেছেন খেলার। তিনি ২৬ রানে অপরাজিত থেকে এক পাশ সামলে রাখেন। রানা আউট হলেই দিনের খেলার ইতি টানেন আম্পায়ার।

ফরহাদ রেজা ১০ ওভারে ১৮ রান দিয়ে সর্বোচ্চ ৩ উইকেট নেন। ১টি করে উইকেট নেন শফিকুল ইসলাম ও তাইজুল ইসলাম। আজ একদিনেই ২ দলের ১৮ উইকেট পড়েছে। দিনের শুরুতে চট্টগ্রামের ৩ উইকেটের পর রাজশাহীর ১০ উইকেট। আবার দিনের শেষে চট্টগ্রামের ৫ উইকেট। 

Read Entire Article