ছাগলের চিকিৎসা করাতে গিয়ে ট্রাকচাপায় প্রাণ গেল নারীর 

2 months ago 47

প্রাণী সম্পদ হাসপাতালে ছাগলের চিকিৎসা করাতে গিয়ে ট্রাকচাপায় করিমা খাতুন নামে এক নারী নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন আরো তিনজন। আহতদের মধ্যে ২ জনকে দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। 

বৃহস্পতিবার বিকেলে পঞ্চগড় জেলা শহরের প্রাণী সম্পদ হাসপাতালের সামনের মহাসড়কে এই দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত করিমা পঞ্চগড় সদর ইউপির ব্যারিস্টার বাজার এলাকার মোটর শ্রমিক রমজান আলীর স্ত্রী। 

আহতরা হলেন সদর উপজেলার কামাতকাজলদিঘী ইউপির মন্ডলপাড়া অটোরিকশা চালক ময়নুল ইসলাম, অটোরিকশার যাত্রী পঞ্চগড় জেলা শহরের জালাসী এলাকার ফাহিমা খাতুন ও তার বোন শাহানা খাতুন। 

স্থানীয়রা জানায়, করিমা খাতুন পঞ্চগড় প্রাণী সম্পদ হাসপাতালে অসুস্থ ছাগলের চিকিৎসা নিতে গিয়েছিলে। চিকিৎসা নিয়ে সড়ক পার হওয়ার সময় তেঁতুলিয়া থেকে পঞ্চগড়গামী বেপরোয়া গতির একটি ট্রাক তাকে ও ছাগলটিকে চাপা দিয়ে সামনের একটি অটোরিকশাকে ধাক্কা দেয়। ছাগলসহ ঘটনাস্থলেই মারা যায় করিমা খাতুন। 

ট্রাকের ধাক্কায় দুমড়ে মুচড়ে যায় অটোরিকশা। গুরুতর আহত হয় অটোরিকশার চালক ময়নুল ইসলাম ও দুই যাত্রী ফাহিমা খাতুন ও শাহানা খাতুন। শাহানা খাতুনের ডান হাতের একাংশ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। 

পঞ্চগড় ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তাদের উদ্ধার করে জেলা আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানে ফাহিমা ও শাহানার অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাদের উন্নত চিকিৎসার জন্য দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। এদিকে ঘটনার পরপরই ট্রাক চালক পালিয়ে যায়। স্থানীয়রা ট্রাকসহ চালকের সহকারী আনোয়ার হোসেনকে আটক করে। গণপিটুনির পর তাকে পুলিশের হাতে তুলে দেয় স্থানীয়রা। আনোয়ারের বাড়ি পাবনা জেলায়।
 
পঞ্চগড় সদর থানার ওসি আবু আক্কাছ আহমদ বলেন, ট্রাকের চালক পালিয়ে গেলেও তার সহকারীকে আটক করা হয়েছে। এ বিষয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের প্রক্রিয়া চলছে। 

Read Entire Article