চতুর্থ নির্বাচনেও অনিশ্চয়তায় নেতানিয়াহু

3 weeks ago 14

ইসরায়েলে দুই বছরের মধ্যে অনুষ্ঠিত চতুর্থ নির্বাচনেও সরকার গঠনে প্রয়োজনীয় আসন না পাওয়ার শঙ্কায় আছেন প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু। ভোট পরবর্তী জরিপগুলো এমন আভাস দিয়েছে বলে জানিয়েছে সাবাদমাধ্যম বিবিসি।

মঙ্গলবার সকাল ৭টা থেকে ভোটগ্রহণ শুরু হয়ে রাত ১০টা পর্যন্ত তা অব্যাহত থাকে। অধিকৃত ভূমি পশ্চিম তীরের অধিবাসীসহ নিবন্ধিত প্রায় ৬৫ লাখ ভোটার এতে অংশ নেন। ইসরায়েলের তিনটি টেলিভিশনের আনঅফিসিয়াল তথ্যের বরাতে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান জানিয়েছে, এখন পর্যন্ত বুথফেরত প্রাপ্ত ফলাফলে প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহুর ডানপন্থী লিকুদ পার্টি কিছুটা এগিয়ে আছে।

পার্লামেন্টের ১২০ আসনের মধ্যে ৬১ আসন পেলেই সরকার গঠন করতে পাবে যে কোনো দল। প্রতিদ্বন্দ্বী দলগুলোর মধ্যে তুমুল লড়াই হবে বলে জনমত জরিপে জানা যায়। ফলে কোনো পক্ষই মন্ত্রিসভা গঠনের মতো সুস্পষ্ট সংখ্যা গরিষ্ঠতা পাবে না।

প্রতিবেদনে জানানো হয়, পার্লামেন্টের ১২০টি আসনের মধ্য থেকে লিকুদ পার্টি এরই মধ্যে ৩১ থেকে ৩৩টি আসন পাচ্ছে বলে জানিয়েছে ইসরায়েলের তিনটি টেলিভিশন। অন্য দিকে বিরোধী ইয়ামিনা পার্টির নামরে পাশে যোগ হয়েছে ১৬ থেকে ১৮টি আসন।

ইসরায়েলের মন্ত্রিসভা গঠন করার জন্য ৬১টি আসন প্রয়োজন কিন্তু জনমত জরিপ বলছে, নেতানিয়াহুর লিকুদ পার্টিসহ কোনো দল বা জোট এতগুলো আসন পাবে না।

ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রীর সাবেক বিশ্বস্ত সহকর্মী নাফতালি বেনেটের নেতৃত্বাধীন ইয়ামিনা মঙ্গলবারের নির্বাচনে সাতটি আসনে জয়ী হতে পারে বলে আভাস পাওয়া গেছে। তবে দলটি কাকে সমর্থন দেবে, সে বিষয়ে স্পষ্ট কিছু জানা যায়নি।

বুথফেরত জরিপের পর এক বিবৃতিতে বেনেট বলেন, ইসরায়েল রাষ্ট্রের জন্য যা কল্যাণকর, আমি তাই করব।

বিবৃতিতে ইয়ামিনাপ্রধান আরো বলেন, নেতানিয়াহুর সঙ্গে তার আলাপ হয়েছে। তিনি নেতানিয়াহুকে বলেছেন, নির্বাচনের চূড়ান্ত ফল দেখে পরবর্তী পদক্ষেপের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন।

করোনাভাইরাস সংক্রান্ত কড়াকড়ির কারণে স্থানীয় সময় বুধবার বিকেলের আগে সব ভোট গণনার আশা করছে না ইসরায়েলের কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিটি।

এদিকে নিবাচর্নের ফল নিয়ে জরিপের মধ্যে সমর্থকদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন নেতানিয়াহু। মঙ্গলবার রাতে এক টুইটে সমর্থকদের উদ্দেশে তিনি বলেন, আপনারা ডানপন্থী ও আমার নেতৃত্বাধীন লিকুদ পার্টিকে বড় জয় এনে দিয়েছেন। এখন পর্যন্ত লিকুদই সবচেয়ে বড় দল।

তিনি আরো বলেন, এটা স্পষ্ট যে, অধিকাংশ ইসরায়েলিই ডানপন্থী এবং তারা শক্তিশালী, স্থিতিশীল ডানপন্থী সরকার চান।

উল্লেখ্য, ২০০৯ সাল থেকে টানা প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করছেন ৭১ বছর বয়সী লিকুদ পার্টির নেতা নেতানিয়াহু। তার বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগে বিচার চলছে। পাশাপাশি করোনা ভাইরাসের মহামারি ব্যবস্থাপনায় চরম অদক্ষতার পরিচয় দিয়েছেন বলে তার বিরুদ্ধে কঠোর সমালোচনা রয়েছে।

Read Entire Article