কয়েক নেতায় নিয়ন্ত্রিত বিএনপি

2 months ago 34

বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটিতে ৬০০ এর অধিক নেতা রয়েছেন। কিন্তু সবাই নামে মাত্র পদবী নিয়ে বসে আসেন। কারণ গুটি কয়েক নেতাই বিএনপিকে নিয়ন্ত্রণ করছেন। এজন্য দলে ‍সৃষ্ট পরিস্থিতিতে তৃণমূল পর্যায়ের নেতা-কর্মীদের মধ্যে চলছে নানা উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, বিএনপির দলীয় কোন্দল ও নেতৃত্বের সংকটের কারণে কোনো কিছুই পরিষ্কার হচ্ছে না। দলের হাইকমান্ড থেকে তৃণমূলের নেতারা পর্যন্ত সঠিক দিক-নির্দেশনা পাচ্ছেন না। হাতেগোনা কয়েকজন নীতিনির্ধারণী পর্যায়ের ব্যক্তি দিয়েই চলছে দলটির সব কার্যক্রম।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, দেড় যুগেরও বেশি সময় ধরে ক্ষমতার বাইরে বিএনপি। দলের এ পরিস্থিতিতে খালেদা জিয়াকে নিয়ে আবারো তৈরি হয়েছে ধুম্রজাল। দলীয় চেয়ারপার্সনের জামিনের মেয়াদ বৃদ্ধি, জামায়াতের সঙ্গ ত্যাগ, একাদশ সংসদ নির্বাচনের আগে গঠিত ঐক্যফ্রন্টের কার্যক্রম, সবকিছুতেই যেন এলোমেলো অবস্থায় বিএনপি।

এছাড়া দলের সব কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে হাতেগোনা কয়েকজন নেতার মাধ্যমে। দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী ও স্থায়ী কমিটির সদস্য সুলতান সালাউদ্দিন আহমেদ টুকু ছাড়া দলের মধ্যে আর কোনো নেতা নেই। সব কার্যক্রমে এ তিন-চারজনের মাধ্যমেই কেন করতে হবে? দলের অভ্যন্তরে এসব বিষয়ে নেতা-কর্মীদের ক্ষোভ ও সমালোচনার শেষ নেই।

এ বিষয়ে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দলটির এক সময়ের শীর্ষ ও প্রভাবশালী এক নেতা বলেন, বিএনপি প্রতিষ্ঠাকালীন সময় থেকে কোনোদিন সংকটে পড়েনি। কিন্তু বর্তমানে দলের অবস্থা কয়েক ব্যক্তিকেন্দ্রীক হয়ে গেছে।

তিনি আরো বলেন, কোনো এক অদ্ভুত শক্তির বলে বিএনপি নেতারা আজ নিষ্ক্রিয় হয়ে আছেন। প্রত্যেক পর্যায়ের নেতা-কর্মীরা আজ রাজনীতি থেকে বিমুখ। তারা পদ-পদবি দখল করে আঁকড়ে ধরে আছেন। নিজেরা সঠিকভাবে তাদের দায়িত্ব পালন করছে না, আবার পদ-পদবিও ছাড়ছেন না। এ অবস্থায় সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে দলের তৃণমূল পর্যায়ের নেতা-কর্মী ও সমর্থকরা। তারা আজ ধোঁয়াশায়।

প্রভাবশালী এ নেতা বলেন, ঘুনেধরা নেতৃত্বের কারণেই বিএনপির আজ এ হাল। দলের দায়িত্ব যেদিন থেকে লন্ডনে পলাতক তারেক রহমানের হাতে তুলে দেয়া হয়েছে, সেদিন থেকেই বিএনপি নামক রাজনৈতিক দলের কফিনে শেষ পেরেক মারা হয়েছে।

Read Entire Article