এবার আল্পনায় রঙিন হবে রংপুর 

2 weeks ago 13

বাঙালি সংস্কৃতি ও ঐতিহ্যের অঙ্গনজুড়ে আল্পনা একটি সুপরিচিত বিষয়। বিভিন্ন সাংস্কৃতিক ও জাতীয় দিবসে রঙ-তুলির নিপুণ ছোঁয়ায় চিত্রশিল্পীরা ফুটিয়ে তোলেন এ শিল্প। এবার স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে আল্পনার যাত্রায় নতুন আরেকটি বিস্ময় সৃষ্টি করছে রংপুরবাসী।

বুধবার (২৪ মার্চ) দুপুরে রংপুর নগরীর ডিসি মোড়সহ কয়েক কিলোমিটার দীর্ঘ এ আল্পনা তৈরির কাজ শুরু করেছে শতাধিক চিত্রশিল্পী ও স্থানীয় স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা। 

কথায় আছে, ‘রঙে রসে ভরপুর, হামার বাড়ি রংপুর’। তারই ধারাবাহিকতায় স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীকে কেন্দ্র করে রঙে রঙ্গিন হয়ে সাজছে রংপুরের রাজপথ। 

আগামী ২৬ মার্চ আমাদের মহান স্বাধীনতা দিবস। তবে এবারের স্বাধীনতা দিবসের তাৎপর্য তূলনামূলকভাবে বেশি। কারণ, স্বাধীনতার ৫০ বছরে পা দিলাম আমরা। যাকে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়েছে। এ উপলক্ষে রংপুর জেলা প্রশাসন হাতে নিয়েছে এই বিশেষ উদ্যোগ। 

রংপুর নগরীর ডিসি মোড় ও বঙ্গবন্ধু চত্ত্বর থেকে শুরু করে সুরভি উদ্যান, রংপুর স্টেডিয়াম, রংপুর টাউন হলসহ চারটি স্থানের সড়কে দীর্ঘ এই আল্পনা তৈরি করছে তারা। এর নাম দেওয়া হয়েছে ‘রঙিন হবে রংপুর’।

এই আয়োজনের নেতৃত্বে দিচ্ছেন চিত্রশিল্পী ও রংপুর চারুকলা একাডেমির প্রশিক্ষক আহসান আহমেদ। এছাড়া দেশবরেণ্য চিত্রশিল্পী তরুণ ঘোষসহ ঢাকা ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি রংপুর চারুকলা একাডেমির চিত্রশিল্পীরা।

আল্পনা উৎসবের আয়োজন সম্পর্কে শিল্পী আহসান আহমেদ বলেন, রংপুরে এর আগেও বেশ বড় বড় আল্পনা উৎসব হলেও এবার এতে একটু নতুনত্ব আনছি আমরা, যা রংপুরে এর আগে হয়নি। এটি সবার মন কাড়বে আশা করছি। আমাদের ইতিহাস, ঐতিহ্য ও সংস্কৃতিকে টিকিয়ে রাখতে হলে শিল্পকে টিকিয়ে রাখতেই হবে। তাই জেলা প্রশাসকের এই আয়োজনে আমরা শিল্পীরা ও সাধারণ মানুষ বেশ খুশি।

বিশেষ এই আয়োজন দর্শনার্থীদের মাঝে কেমন প্রভাব ফেলবে, এ সম্পর্কে কথা বলেন আল্পনা উৎসবের একজন জোন লিডার রংপুর চারুকলা একাডেমির শিক্ষার্থী মো. জুয়েল। তিনি বলেন, আমাদের নতুন প্রজন্ম এখনকার এই তথ্যপ্রযুক্তির যুগে অনেকটাই অপরিচিত বাঙালি সংস্কৃতির সঙ্গে। তাই এই আয়োজনগুলো দর্শনার্থীদের মাঝে বাঙালির ঐতিহ্য সংস্কৃতিকে কিছুটা হলেও তুলে ধরতে সক্ষম হবে। সেইসঙ্গে আমরা যারা চারুকলার সঙ্গে যুক্ত আছি, আমাদের জন্যও অভিজ্ঞতা অর্জনের বিশাল মাধ্যম এই আয়োজন। 

রংপুর জেলা প্রশাসক আসিব আহসান বলেন, স্বাধীনতা দিবস এবং স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীকে কেন্দ্র করে রংপুরে এই আল্পনা উৎসব, যা সবার কাছেই বেশ উপভোগ্য একটি আয়োজন। তবে পুরো ব্যাপারটিতে স্বাস্থ্যঝুঁকি এড়াতে ও সার্বিক সহায়তায় আমরা জেলা প্রশাসন সদা তৎপর।

রংপুর জেলা প্রশাসনের এই আয়োজনকে বাস্তবে রূপ দিতে সার্বিক সহযোগিতায় আছে রংপুরের স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘We For Them’।

রংপুর নগরীর প্রাণকেন্দ্রে দৃষ্টিনন্দন এই আয়োজন দেখতে ছুটে আসছেন সংস্কৃতি মনা দর্শনার্থীরা। তবে, স্বাস্থ্যবিধি মেনে ও সু-শৃঙ্খলভাবে আয়োজনটি সম্পন্ন করতে কাজ করছে রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ ও স্থানীয়রা।

View Source