ইন্টারনেট সুবিধা বঞ্চিত হাবিপ্রবির শিক্ষার্থীরা

2 months ago 37

২০১৪ সালে পুরো ক্যাম্পাসকে ওয়াই-ফাই (ইন্টারনেট) নেটওয়ার্কের আওতায় আনে প্রশাসন

২০১৪ সালে পুরো ক্যাম্পাসকে ওয়াই-ফাই (ইন্টারনেট) নেটওয়ার্কের আওতায় আনে প্রশাসন

যুগের সাথে তাল মিলিয়ে চলতে উচ্চগতির ইন্টারনেটের বিকল্প নেই। কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার ২১ বছর পরেও ইন্টারনেট (ওয়াই-ফাই) সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (হাবিপ্রবি) শিক্ষার্থীরা। 

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, ডিজিটাল বিশ্ববিদ্যালয় গড়ার লক্ষে ২০১৪ সালে পুরো ক্যাম্পাসকে ওয়াই-ফাই (ইন্টারনেট) নেটওয়ার্কের আওতায় আনে প্রশাসন। কিন্তু কিছুদিন চালানোর পর তা বন্ধ করে দেয়া হয়। ২০১৬ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে নতুন উপাচার্য আসার পর পুরো ক্যাম্পাসজুড়ে ওয়াই-ফাই জোন করার ঘোষণা দিলেও সেই ঘোষণা এখনো বাস্তবায়িত হয়নি।

বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ওয়াইফাই সংযোগ চালু করলেও তা সব জায়গায় উন্মুক্ত করা হয়নি। শিক্ষার্থীদের ব্যবহারের জন্য নির্দিষ্ট করে শুধু বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি চত্বরেই ওয়াইফাই সংযোগ দেয়া হয়েছে। সংযোগটি খুব ধীরগতি সম্পন্ন এবং দুর্বল ফ্রিকোয়েন্সির হওয়ায় প্রায় সময় সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় বলে জানা যায়। এতে শিক্ষার্থীরা দিন দিন তথ্যপ্রযুক্তির ব্যবহারে পিছিয়ে পরছে। 

শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে যে ওয়াইফাই সংযোগ দেয়া হয়েছে তা আসলে অকার্যকর। অনেক সময় এর নেটওয়ার্ক পাওয়া যায় না।

বিজ্ঞান অনুষদের শিক্ষার্থী জাকারিয়া রহমান বলেন, শিক্ষকদের দেয়া অ্যাসাইনমেন্ট ও বিভিন্ন অনলাইন গবেষণাপত্র ও বই খোঁজার জন্য শিক্ষার্থীরা নিজেদের খরচে ইন্টারনেট ব্যবহার করছেন। ফলে শিক্ষার্থীদের পড়তে হচ্ছে বাড়তি অর্থের চাপে। হাবিপ্রবি যেহেতু বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় সেহেতু সাধারণ শিক্ষার্থীদের কথা চিন্তা করে পুরো ক্যাম্পাস ওয়াই-ফাই এর আওতায় নিয়ে আসা প্রয়োজন ।

এদিকে টিএসসির ওয়াই-ফাই সংযোগ পেতে নানা প্রতিবন্ধকতার শিকার হতে হচ্ছে সাধারণ শিক্ষার্থীদের । প্রাথমিকভাবে ইন্টারনেট সংযোগ পেতে গেলে করতে হয় রেজিস্ট্রেশন। এছাড়া উক্ত ইন্টারনেট ব্যবহার করে ইউটিউবিং করা যায় না বলে জানা যায়। দুপুর ১২টার আগে এবং সন্ধ্যা ৭টা পর ইন্টারনেট সেবা বন্ধ থাকে বলে অভিযোগ উঠেছে। এনিয়ে সাধারণ শিক্ষার্থীদের মাঝে তীব্র ক্ষোভ ও হতাশা কাজ করছে।

এবিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ডা. ফজলুল হক জানান, সাবেক উপাচার্য পুরো ক্যাম্পাসে ওয়াইফাই আওতায় আনার যে ঘোষণা দিয়েছিলেন তা ধীরে ধীরে বাস্তবায়ন হচ্ছে। মনে রাখতে হবে উন্নয়ন চলমান প্রক্রিয়া। আমরা টিএসসি ও কবি সুফিয়া কামাল হলে এরইমধ্যে ওয়াইফাই এর আওতায় এনেছি।

তিনি আরো জানান, প্রতিটি কাজে সময়-অর্থ এবং এ সংশ্লিষ্ট অনেক কাজ করতে হয়। তবে ধীরে ধীরে ক্যাম্পাসজুড়ে শিক্ষার্থীদের ইন্টারনেট সুবিধা সুনিশ্চিত করা হবে।

Read Entire Article