ইউপি নির্বাচনে রিটার্নিং অফিসার নিয়োগের পরিপত্র জারি ইসির

2 weeks ago 12

আসন্ন দশম ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন উপলক্ষে রিটার্নিং অফিসার নিয়োগসহ আরও কিছু কার্যক্রমের বিষয়ে পরিপত্র জারি করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। 

বৃহস্পতিবার (২৫ মার্চ) ইসির উপ-সচিব (নির্বাচন পরিচালনা শাখা-২) মো. আতিয়ার রহমান স্বাক্ষরিত এক আদেশে এ পরিপত্র জারি করা হয়।

মো. আতিয়ার রহমান জানান, ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন উপলক্ষে নির্বাচনি সময়সূচি, রিটার্নিং অফিসার নিয়োগ, মনোনয়নপত্র বাছাই, বাছাইয়ের বিরুদ্ধে আপিল নিষ্পত্তি, রাজনৈতিক দলের প্রার্থী মনোনয়ন, প্রার্থীর যোগ্যতা-অযোগ্যতা ও প্রতীক বরাদ্দ এবং অন্যান্য কার্যক্রম গ্রহণে পরিপত্র জারি করা হয়েছে। 

পরিপত্রে জানানো হয়, ইউনিয়ন পরিষদ সাধারণ নির্বাচনে কয়েকটি ধাপে অনুষ্ঠানের জন্য সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে নির্বাচন কমিশন।  আগামী ১১ এপ্রিল প্রথম ধাপে ৩৭১টি ইউনিয়নের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। প্রথম ধাপের নির্বাচনের জন্য সময়সূচি, রিটার্নিং অফিসার ও ক্ষেত্র বিশেষ সহকারী রিটার্নিং অফিসার নিয়োগ, মনোনয়নপত্র বাতিল বা গ্রহণের বিরুদ্ধে আপিল নিষ্পত্তির জন্য নির্ধারিত কর্মকর্তা, মনোনয়নপত্র আহ্বানের গণবিজ্ঞপ্তি জারি, নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলের চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন, মনোনয়নপত্র দাখিল, বাছাই ইত্যাদি বিষয়ে নির্বাচন কমিশন বিভিন্ন নির্দেশনা দিয়েছে।

ইসির ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, রিটার্নিং অফিসারের কাছে মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ সময় ১৮ মার্চ। রিটার্নিং অফিসারের কাছে মনোনয়নপত্র বাছাইয়ের শেষ দিন ১৯ মার্চ।  প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন ছিল ২৪ মার্চ এবং ভোটগ্রহণ হবে ১১ এপ্রিল।

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালের ২২ মার্চ প্রথম ধাপে ৭৫৫টি ইউপি নির্বাচন আয়োজন করা হয়েছিল।  ৪ হাজার ৫৭১টি ইউপির মধ্যে ৪ হাজার ১০০ মতো ইউপিতে ভোট করা যাবে।  ২০০ ইউপিতে মামলা জটিলতার কারণে নির্বাচন আটকে আছে।  দেশ স্বাধীন হওয়ার পর থেকে এরই মধ্যে ৯ বার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। এর মধ্যে ১৯৭৩ সালে প্রথম ইউপি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এরপর ১৯৭৭, ১৯৮৩, ১৯৮৮, ১৯৯২, ১৯৯৭, ২০০৩ ও ২০১১ সালে ইউপি নির্বাচন হয়েছে। সর্বশেষ ২০১৬ সালে নবম ইউপি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। চলতি ২০২১ সালেই অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে দশম ইউপি নির্বাচন।
 

View Source